ভূমি মন্ত্রণালয় গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার
মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C
সর্ব-শেষ হাল-নাগাদ: ২২nd August ২০১৯

সচিব

সংক্ষিপ্ত জীবন বৃত্তান্ত

 

১। নাম : মো: মাক্‌ছুদুর রহমান পাটওয়ারী
২। জন্ম তারিখ : ০১.০১.১৯৬২
৩। স্থায়ী ঠিকানা : পিতা-মৃত বদিউজ্জামান পাটওয়ারী, মাতা- আশরাফুন নেছা, গ্রাম-সকদি রামপুর, ডাকঘর-চান্দ্রা, উপজেলা-ফরিদগঞ্জ, জেলা-চাঁদপুর।
৪। চাকরিতে যোগদান : ১৫.০২.১৯৮৮
৫। ব্যাচ : ১৯৮৫
৬। পরিচিতি নম্বর : ৪৫০৮
৭। যেসকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠান হতে শিক্ষা গ্রহণ করেছেন : ১। চান্দ্রা ইমাম আলী উচ্চ বিদ্যালয়
২। চাঁদপুর সরকারি কলেজ
৩। বিএ (অনার্স), এমএ (সাধারণ ইতিহাস), ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়।
৮। সহকারী কমিশনার : নারায়নগঞ্জ, মুন্সিগঞ্জ, শরিয়তপুর
৯। উপজেলা ম্যাজিস্ট্রেট : বারহাট্টা, নেত্রকোনা, গজারিয়া, টঙ্গীবাড়ী, মুন্সিগঞ্জ।
১০। মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট : ঢাকা (০১.০১.১৯৯৮- এপ্রিল ২০০৩)।
১১। উপজেলা নির্বাহী অফিসার : বাজিতপুর, কিশোরগঞ্জ (০১.০৫.২০০.-০৪.১২.২০০৩ পর্যন্ত)।
১২। অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক : রাজবাড়ী (১৪.১২.২০০৩-১৮.১১.২০০৬ পর্যন্ত)।
১৩। উপসচিব : সংস্থাপন মন্ত্রণালয় (২২.০৪.২০০৭-২৮.০৮.২০০৮ পর্যন্ত)।
১৪। জেলা প্রশাসক : টাংগাইল (৩১.০৮.২০০৮-১৫.০৯.২০০৯ পর্যন্ত)।
১৫। উপসচিব : মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ (১২.১১.২০০৯-০৭.০২.২০১২ পর্যন্ত)।
১৬। যুগ্মসচিব : মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ (২৭.০২.২০১২-০৫.০৪.২০১৫ পর্যন্ত)।
১৭। অতিরিক্ত সচিব : মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ (০৭.০৪.২০১৫-০১.০৯.২০১৭ পর্যন্ত)।
১৮। অতিরিক্ত সচিব : সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয় (১৮.১০.২০১৭-২০.০৯.২০১৮ পর্যন্ত)।
১৯। মহাপরিচালক : বাংলাদেশ জাতীয় জাদুঘর (২০.০৯.২০১৮- ৩০.১০.২০১৮ পর্যন্ত)।

 

উল্লেখযোগ্য কার্যক্রম

 

  • উপজেলা, জেলা ও বিভাগীয় পর্যায়ের মাঠপ্রশাসনের কার্যক্রম আরো গণমূখী, সেবাধর্মী ও কার্যকর করণার্থে বিভাগীয় কমিশনার, জেলা প্রশাসক, উপজেলা নির্বাহী অফিসার, সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও অন্যান্য কর্মকর্তাদের উদ্দেশ্যে জনমূখী, গতিশীল ও জবাবদিহিমূলক প্রশাসন গড়ার লক্ষ্যে ৫৭টি পরিপত্র/নির্দেশনা জারি; মানবিক কারণে জারিকৃত গুরুত্বপূর্ণ কয়েকটি নিম্নরূপ:
  • নামজারি ও ভূমি সেবা প্রদান সংক্রান্ত কার্যক্রম সহজলভ্য ও গণমূখী করার জন্য পরিপত্র জারি;
  • বাস্তব অবস্থাভিত্তিক মোবাইল কোর্ট পরিচালনার জন্য নির্দেশনা প্রদান;
  • মোবাইল কোর্ট আইন, ২০০৯ সহজভাবে বাস্তাবয়নের লক্ষ্যে মোবাইল কোর্ট নির্দেশিকা নামক পুস্তিকার অন্যতম প্রণেতা;
  • গ্রাম আদালত কার্যকরভাবে পরিচালনার লক্ষ্যে পরিপত্র জারি;
  • বিনা বিচার/তদবির করার মত কেহ নাই এমন হাজতে থাকা আসামীদের মামলার তদন্ত ও অন্যান্য আইনগত সহায়তা প্রদান সংক্রান্ত পরিপত্র;
  • দরিদ্র অথচ মেধাবী শিক্ষার্থীদের উচ্চশিক্ষা লাভের ক্ষেত্রে আর্থিক সহায়তা প্রদান সংক্রান্ত গাইডলাইন;
  • বিবেক ও মানবিক চেতনায় উদ্ধুদ্ধ হয়ে কজ করার জন্য বিশেষ অনুপ্রেরণা প্রদান;
  • মাধ্যমিক ও সমপর্যায়ের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের সপ্তম হতে দশম শ্রেণি পর্যন্ত উত্তীর্ণ প্রথম, দ্বিতীয় ও তৃতীয় স্থান অধিকারীদের জন্য বিশেষ উদ্যোগ গ্রহণ (২০১৭ সনে প্রায় ১,৭২,০০০ শিক্ষার্থীকে উপানুষ্ঠানিক পত্র প্রদান);
  • উপসচিব, যুগ্মসচিব ও অতিরিক্ত সচিব হিসেবে প্রায় ৮ বছার মন্ত্রিপরিষদ বিভাগে দায়িত্ব পালন;
  • জেলা প্রশাসক, টাঙ্গাইল হিসেবে ২০০৮ ও ২০০৯ সালে দায়িত্ব পালন;
  • মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের জেলা ও মাঠপ্রশাসন অনুবিভাগের প্রধান হিসেবে প্রায় আড়াই বছার দায়িত্ব পালন;
  • সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের পরিকল্পনা ও উন্নয়ন অনুবিভাগের দায়িত্ব পালন;
  • মহাপরিচালক, বাংলাদেশ জাতীয় জাদুঘর হিসাবে একমাস দশ দিন দায়িত্ব পালন।

 

বিদেশ ভ্রমণ

 

সরকারি কাজে ভারত, নেপাল, থাইল্যান্ড, মালয়েশিয়া, সিঙ্গাপুর, ভিয়েতনাম, ইন্দোনেশিয়া, জাপান, দক্ষিণ কোরিয়া, সৌদি আরব, সংযুক্ত আরব আমিরাত ও মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ভ্রমণ করেছেন।

 

জবাবদিহিমূলক স্বচ্ছ, দক্ষ ও জনবান্ধব ভূমি ব্যবস্থাপনা নিশ্চিতকরণে গৃহীত উদ্যোগ-

 

ভূমি মন্ত্রণালয়ের সকল কর্মকর্তা-কর্মচারী ও এর আওতাধীন সকল সংস্থা/দপ্তর ও সংশ্লিষ্ট অংশীজনের সহায়তায় একটি জবাবদিহিমূলক স্বচ্ছ, দক্ষ ও জনবান্ধব ভূমি ব্যবস্থাপনা এবং ভূমি প্রশাসন গড়ে তোলার জন্য তিনি প্রতিশ্রুতিবদ্ধ। দক্ষতা ও দ্রুততার সঙ্গে মানুষের জন্য বেশি বেশি কাজ করা তাঁর অন্যতম লক্ষ্য। এছাড়াও সকল ভূমিসেবা নাগরিকের হাতের নাগালে পৌছানোর জন্য ডিজিটালিজেশন কার্যক্রম দ্রুততার সঙ্গে বাস্তবায়ন করে যাচ্ছেন। ভূমিসেবা গ্রহণে নাগরিকের যেকোনো ভূমি অফিসে গমন না করেই যেকোনো স্থান হতে সেবা গ্রহণের কার্যকরী উদ্যোগের মধ্যে সকল উপজেলাতে ই-নামজারী চালু এবং আরএস খতিয়ান অনলাইনে প্রকাশ অন্যতম। এছাড়াও অনলাইনে ভূমি উন্নয়ন কর প্রদান, ভার্চুয়াল রেকর্ড রুম স্থাপন, উপজেলা হতে সকল ইউনিয়ন ভূমি অফিস পর্যন্ত ব্রডব্র্যান্ড কানেক্টিভিটি নিশ্চিতকরণ, ডিজিটাল জরিপ কার্যক্রম নিশ্চিতকরণসহ সর্বোপরি ভূমিসেবা অটোমেশন নিশিচতকরণে প্রয়োজনীয় আইন সংশোধনসহ ডিজিটাইজেশনের নতুন নতুন উদ্যোগ নিয়ে কাজ করে যাচ্ছেন। ভূমি প্রশাসনে কর্মকর্তা-কর্মচারীদের দূর্নীতিতে জিরো টলারেন্স নীতি বাস্তবায়নে মাঠ পর্যায়ে শুদ্ধাচার প্রশিক্ষণ শুরু করেছেন। সকল জেলাতে শুদ্ধাচার প্রশিক্ষণের মাধ্যমে ভূমি ব্যবস্থাপনার সঙ্গে জড়িত কর্মকর্তা-কর্মচারীদের সতর্ককরণসহ ভূমিসেবা প্রদানে সুনাম অর্জনকারী কর্মকর্তা-কর্মচারীদের পুরস্কার প্রদানের মাধ্যমে ভূমিসেবাকে জনবান্ধব করার অঙ্গীকার গ্রহণ করছেন। 

 


Share with :

Facebook Facebook